রাজশাহীতে মাদ্রাসা ছাত্রীকে তুলে নিয়ে হাত-মুখ বেঁধে ধর্ষণ

রাজশাহীতে এক মাদ্রাসা ছাত্রীকে রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে দল বেঁধে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। বৃহস্পতিবার সকালে পবা উপজেলার কিসমত কুখণ্ডি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। পরে ছাত্রীর বাবা বা ও স্থানীয়রা গিয়ে তাকে উদ্ধার করে। এ সময় লোকজনের উপস্থিতি দেখে পালিয়ে যায় ধর্ষকরা।

স্থানীয়রা জানায়, বৃহস্পতিবার সকাল ১০ টায় কিসমত কুখণ্ডি সংলগ্ন জয়পুর এলাকায় বান্ধবীকে এগিয়ে দিতে যাচ্ছিল ওই ছাত্রী। ফেরার পথে উষা এগ্রো খামারের কাছে পৌঁছালে তাকে ধরে নিয়ে যায় একই এলাকার দুই যুবক। পরে একটি ঘরে হাত মুখ বেঁধে সকাল ১০টা থেকে দুপুর পর্যন্ত আটকে রাখে এবং দল বেঁধে ধর্ষণ করে।

পরে দুপুুর ১টার দিকে স্থানীয় কিছু ছেলে বিষয়টি বুঝতে পেরে এক ধর্ষককে ধাওয়া করে। এসময় অন্যরাও পালিয়ে যায়। পরে ওই ছাত্রীর বাবা মা গিয়ে তাকে উদ্ধার করে নিয়ে যায়। বিকেল ৫টার দিকে ধর্ষণের শিকার ছাত্রীকে নিয়ে কাটাখালি থানায় যায় তার বাবা মা।

কাটাখলি থানার ডিউটি অফিসার ফয়েজ জানান, এ বিষয়ে ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছে। আসামীদের গ্রেপ্তারের জন্য ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

কাটাখালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মেহেদী হাসান জানান, বিষয়টি আমরা শুনেছি । তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বিএ-১৪/১৭-০৫ (নিজস্ব প্রতিবেদক)

নাটোরে বাবার গ্রেফতারের খবরে ভেঙে গেল মেয়ের বিয়ে

নাটোরে ইয়াবাসহ বাবা গ্রেফতার হওয়ার খবরে ভেঙে গেছে মেয়ের বিয়ে। নাটোরের লালপুর উপজেলার জোকাদহ গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা জানায়, বৃহস্পতিবার ঈশ্বরদী উপজেলার বাসিন্দা এক ছেলের সঙ্গে বিয়ে হওয়ার কথা ছিল জোকাদহ গ্রামের মেহের আলীর (৩৫) মেয়ে মৃদুলার।

বুধবার রাতে ১৬০০ পিস ইয়াবাসহ মেহের আলীকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এ খবর শুনে মৃদুলাকে বিয়ে করতে অসম্মতি জানায় বরপক্ষের লোকজন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে লালপুর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম জুয়েল বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বুধবার রাতে উপজেলার ভাদুর বটতলা মোড়ে অভিযান চালিয়ে মেহের আলীর যাত্রীবিহীন রিকশা থেকে একটি বস্তা উদ্ধার করা হয়।

বস্তাটিতে ছোট ছোট পাইপের ভেতর থেকে ১৬০০ পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। এ অভিযোগে মেহের আলীকে গ্রেফতার করে মামলা দায়েরের মাধ্যমে নাটোর জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। তবে বৃহস্পতিবার মেহের আলীর মেয়ের বিয়ে দিন ছিল কিনা বিষয়টি তার জানা নেই বলে জানান ওসি।

বিএ-০৬/১৭-০৫ (উত্তরাঞ্চল ডেস্ক, তথ্যসূত্র: জাগো নিউজ)